Pakundia Pratidin
ঢাকামঙ্গলবার , ১৯ এপ্রিল ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস
  3. ইসলাম ও জীবন
  4. কৃতি সন্তান
  5. জাতীয়
  6. জেলার সংবাদ
  7. তাজা খবর
  8. পাকুন্দিয়ার সংবাদ
  9. ফিচার
  10. রাজনীতি
  11. সাহিত্য ও সংস্কৃতি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শিক্ষার্থীদের কল্যানে ছাত্র সংগঠনগুলোর ভূমিকা কি?

প্রতিবেদক
পাকুন্দিয়া প্রতিদিন ডেস্ক
এপ্রিল ১৯, ২০২২ ১১:৩১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সুলতান আফজাল আইয়ূবী
পাকিস্তান ও বাংলাদেশ আমলের প্রথমদিকে এই ভূখন্ডে অধিকার আদায়ের সংগ্রামে ছাত্ররাই ছিল লড়াকু ও অগ্রনী ভূমিকায়। ছাত্র অধিকার, সাধারণ মানুষের জীবন ও জীবিকার অধিকার এবং জাতীয় অধিকার আধায়ে সোচ্চার হতে দেখা গেছে তৎকালীন ছাত্রদেরকে। পাশাপাশি জাতীয় ইস্যু নিয়ে স্বাধীন অবস্থান থেকে আন্দোলন। এ গুলির মধ্যে ভাষা রক্ষার আন্দোলন, সামরিক শাসন বিরোধী  ৬ দফা ও ১১ দফা ভিত্তিক আন্দোলন এবং ১৯৬২ সালের শিক্ষা আন্দোলন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে আন্দোলন। দেশস্বাধীন হওয়ার পর দেশ গঠনের আন্দোলন সব আন্দোলনেই ছিল ছাত্রদের অগ্রনী ভূমিকা।

কিন্তু সমকালীন ছাত্র রাজনীতির চিত্র ভিন্ন। বিগত দশকে বাংলাদেশে যে বড় কয়টি ছাত্র আন্দোলন হয়েছে৷ নিরাপদ সড়ক আন্দোলন, কোটা সংস্কার আন্দোলন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাটবিরোধী আন্দোলন এবং চলমান অর্ধেক ভাড়া ও নিরাপদ সড়ক আন্দোলন৷ এর কোনোটিতেই রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনগুলোর কোন সাধারন অংশগ্রহণও চোখে পড়ার মত ছিলনা ৷সাধারণ ছাত্রদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহণেই এইসব আন্দোলন হয়েছে৷ কিছুদিন পর পর একের পর এক ছাত্রের রক্তে রঞ্জিত হচ্ছে ক্যাম্পাস। ছাত্র নির্যাতনের ভিডিও ফুটেজ দেখে প্রতিটি সচেতন ব্যক্তির গা শিহরে উঠার কথা। সকলে প্রতিবাদে ঝাঁপিয়ে পড়ার কথা। কিন্তু চিত্র ভিন্ন।রাজনৈতিক দল; ছাত্র অধিকারের কথা বলেন এমন সব ছাত্র সংগঠন সকলেই আজ নিরব। কেউ কেউ শুধু বিবৃতির মধ্যেই সীমাবদ্ধ।

গতরাত থেকে দেশের প্রধান খবর নিউ মার্কেট ও ঢাকা কলেজের ছাত্র ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষ। দফায় দফায় গতকাল রাত ১১ টা থেকে এখনো চলছে এ সংঘর্ষ। এ সংঘর্ষের প্রেক্ষিতে ছাত্রদের কল্যানে এখন পর্যন্ত দেশের কোন রাজনৈতিক ছাত্র সংগঠনগুলোর দৃশ্যমান কোন ভূমিকা ছিলনা। দেশের বিগ পাওয়ার ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের কি ভূমিকা ছিল ছাত্রদের কল্যানে? যদিও কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী পরিদর্শনে গিয়েছিলেন ঢাকা কলেজে। উনি সেখানে গিয়েও নাকি প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছেন বলে খবর দেখেছি গণমাধ্যমে। এছাড়াও দেশের নবগঠিত ছাত্রদলের এ ইস্যুতে কোন ভূমিকায় চোখে পড়েনি। চরমোনাই পীরের ছাত্র সংগঠন দেশের নানা ইস্যুতে অগ্রনী ভূমিকা থাকলেও এ ক্ষেত্রে নূন্যতম কোন বিবৃতিও চোখে পড়েনি। ছাত্র শিবিরের দুঃসময়ে তাদের না হয় নাই ঠানলাম এখানে। সবমলিয়ে আমরা ধরে নিতে পারি প্রতিটি ছাত্র সংগঠনই তাদের মূল দলের হাতিয়ার হিসেবেই তৈরী হচ্ছে? প্রতিটি রাজনৈতিক দলই তাদের ছাত্র সংগঠনকে নিজেদের স্বার্থে ব্যাবহার করছে। যার ফলে সংগঠনগুলো সামান্য কারণেই প্রতিপক্ষের ওপর চড়াও হচ্ছে কিন্তু পারতপক্ষে সাধারন ছাত্রদের কল্যাণে ছাত্র সংগঠনগুলোর ভূমিকা নেই বললেই চলে।

আজকের ঘটে যাওয়া প্রতিটি ঘটনায় সচেতন মানবের হৃদয়ে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। সকালে দাওয়া পাল্টা দাওয়া, ৪ ঘন্টা পর ঘটনা স্থান পরিদর্শনে পুলিশ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ! বিষয়টি হাস্যকরও বটে। ছাত্র ব্যবসায়ীদের মধ্যে অস্ত্রধারী এরা কারা? ফুটেজ দেখে এদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় ভাবে ব্যাবস্থা নেওয়া হোক। এই প্রথম কোনো আন্দোলনে এম্বুলেন্সে হামলা দেখলাম। যা সত্যিই দুঃখজনক! হামলাকারীরা কি মানুষ ছিল?

সোশ্যাল মাধ্যমে একটা ছবি খুব ঘুরতে দেখলাম একজন পুলিশ টিয়ারশেল মারছে ঢাকা কলেজের দিকে। যেখানে প্রতিবছর পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে নিযুক্ত হয় ঢাকা কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা।বাংলাদেশের ইতিহাস ঐতিহ্যের ধারক বাহক ঢাকা কলেজের দিকে গুলি থাক করার ছবি সত্যিই এদেশের শিক্ষিত সমাজের হৃদয়ে রক্তক্ষরণের জন্ম দেয়।পুলিশের কাজ ছিলো ২ পক্ষকে শান্ত করা। তা না করে ঢাকা কলেজে শিক্ষার্থীদের উপর মুহুমূহু গুলি করে পুলিশ। যা দেখে সত্যিই সারাদেশের শিক্ষার্থীরা মর্মাহত।দিনশেষে ঢাকা কলেজ বন্ধ ঘোষণা শিক্ষার্থীদের মনে ক্ষোভকে বাড়িয়ে দেওয়া ছাড়া কিছুই নয়। আমরা নিউ মার্কেট ভেঙ্গে দেওয়ার পক্ষেও না আবার অমিমাংসিত রেখে ঢাকা কলেজ বন্ধের পক্ষেও না। সুষ্ঠু সঠিক (নাটকীয় নয়) তদন্ত হোক। ঢাকা কলেজ ও নিউ মার্কেট প্রতিবেশীর মত বসবাস করুক।

রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও গণমাধ্যমকর্মী
nobosur15@gmail.com

error: Content is protected !!