রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ১২:২৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
পাকুন্দিয়া প্রতিদিন আরও সমৃদ্ধ ও পাঠকপ্রিয় হয়ে উঠবে আগামী দিনগুলোতে সেসময়ে ইন্টারনেট এতটা গতিশীল ছিল না,কিন্তু পাকুন্দিয়া প্রতিদিন এর খবর গুলোর জনপ্রিয়তা ছিল ৪ ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয়েছে সাকিবকে বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে ; বাড়তে পারে বৃষ্টিপাত জুয়া,ও মাদক নির্মূলে মসজিদে পাকুন্দিয়া থানা ওসির প্রচারনা স্বতন্ত্র কিছু বৈশিষ্ট্যের কারণেই পত্রিকাটি পাকুন্দিয়ার মানুষের কাছে জনপ্রিয় রাগে উইকেট ভেঙে ফেলেন সাকিব ; অবশেষে চাইলেন ক্ষমা আমি যে কয়টি অনলাইন পত্রিকা পড়ি তাদের মধ্য পাকুন্দিয়া প্রতিদিন অন্যতম করোনায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ জনের মৃত্যু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ

বেড়েছে জোয়ারের পানি ; আতঙ্কিত উপকূলীয় অঞ্চল

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৫ মে, ২০২১
  • ৫৩ Time View

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে খুলনায়। আজ মঙ্গলবার সকালের জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে বেড়েছে কয়েক ফুট। এতেই বাঁধের কানায় কানায় উঠেছে পানি। কোথাও কোথাও বাঁধ উপচে লোকালয়ে পানি ঢুকছে। নদী রয়েছে উত্তাল, মেঘলা আকাশের সঙ্গে মাঝেমধ্যে দমকা হাওয়া ও বৃষ্টি হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন উপকূলীয় কয়রা, দাকোপ, পাইকগাছা ও বটিয়াঘাটা এলাকার মানুষ। যেকোনো ভয়ংকর পরিস্থিতি মোকাবিলা করার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন তাঁরা। ঝুড়ি-কোদাল নিয়ে পাহারা দিচ্ছেন বাঁধ।

খুলনা আবহাওয়া কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আমিরুল আজাদ বলেন, সকাল নয়টার দিকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি এখন প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে। ঝড়ের কেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার, যা দমকা ও ঝোড়ো হাওয়ায় বেড়ে ১১৭ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। মোংলা, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী সংকেত দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ঝড় যখন উপকূলে আঘাত হানবে, তখন নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট বৃদ্ধি পাবে। সকাল থেকে যে বৃষ্টি ও দমকা হাওয়া বইছে, তা ইয়াসের প্রভাবেই হচ্ছে।

এদিকে জোয়ারের পানি যেন বাঁধ উপচে বা ভেঙে লোকালয়ে প্রবেশ করতে না পারে, সে জন্য উপকূলীয় এলাকায় বাঁধ সংস্কারের কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)। গত কয়েক দিন চলা ওই কাজ এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে।

খুলনার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ হলো কয়রা উপজেলায়। ওই উপজেলায় ১৫৫ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ রয়েছে, যার প্রায় অর্ধেক ঝুঁকিপূর্ণ। উপজেলাটি পাউবো সাতক্ষীরা বিভাগ-২-এর আওতায়।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© ২০১৬ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো কনটেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
কারিগরি সহযোগিতায়: Ashraf Ali Sohan
www.ashrafalisohan.com