Pakundia Pratidin
ঢাকামঙ্গলবার , ৩ মে ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস
  3. ইসলাম ও জীবন
  4. কৃতি সন্তান
  5. জাতীয়
  6. জেলার সংবাদ
  7. তাজা খবর
  8. পাকুন্দিয়ার সংবাদ
  9. ফিচার
  10. রাজনীতি
  11. সাহিত্য ও সংস্কৃতি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বৃষ্টিতে ভিজে এবার শোলাকিয়ায় লাখো মুসল্লির নামাজ আদায়

প্রতিবেদক
পাকুন্দিয়া প্রতিদিন ডেস্ক
মে ৩, ২০২২ ১:০২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শাহরিয়া হৃদয়,ষ্টাফ রিপোর্টারঃ তুমুল বৃষ্টিতে ভিজে এবার ১৯৫তম ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে। সকাল থেকেই খারাপ আবহাওয়া থাকলে নামাজ শুরুর আধা ঘণ্টা আগে থেকে শুরু হয় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি।

আজ (৩ এপ্রিল) সকাল ১০টায় এ নামাযের সময় থাকলেও সকাল থেকেই মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। এতে ইমামতি করেন মাওলানা মুফতি শোয়াইব বিন আব্দুর রউফ।

এর আগে মহামারি করোনার কারণে গত দুই বছর দেশের সর্ব বৃহৎ ও প্রাচীন কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি।

এর আগে জামাতে জায়নামাজ ও মাস্ক ছাড়া আর কিছু সঙ্গে আনতে পারেনি কেউ। আগের মতোই মুসল্লিদের ময়মনসিংহ ও ভৈরব থেকে দুটি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা ছিলো।

কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. শামীম আলম বলেন, ‘এ বছর অতীতের চেয়ে বেশি সংখ্যক মুসল্লি উপস্থিত হয়েছে। ধারণা করছি প্রায় ৩ লাখের মতো মুসল্লি নামাজ আদায় করেছেন।’

এ বিষয়ে কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ (বিপিএম) বলেন, “নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে আয়োজন করা হয়েছে ঈদের জামাত। পাঁচ প্লাটুন বিজিবি, বিপুল সংখ্যক পুলিশ, র‌্যাব, আনসার সদস্যরা নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিলো। পুরো মাঠ ও আশপাশ সিসি ক্যামেরার আওতার মধ্যে ছিলো। তাছাড়া প্রত্যেক মুসল্লি কমপক্ষে চার ধাপের নিরাপত্তা বলয় পার হয়ে মাঠে প্রবেশ করেছেন।

জনশ্রুতি আছে, ১৮২৮ সালে এই মাঠে অনুষ্ঠিত ঈদুল ফিতরের জামাতে সোয়া লাখ মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করেছিলেন। তখন এ মাঠের নাম হয় ‘সোয়া লাখিয়া’।

পরবর্তীতে উচ্চারণ বিবর্তনে সোয়া লাখিয়া থেকে এ ঈদগাহ ময়দানের নাম শোলাকিয়া হিসেবেই সমধিক পরিচিত হয়ে ওঠে। এ ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত ঈদুল ফিতরের জামাতে দেশ-বিদেশের কয়েক লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশ নিয়ে থাকেন।

এক শ্রেণির ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা মনে করেন, দেশের প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী ও সর্ববৃহৎ এ ঈদগাহ ময়দানে পরপর তিনবার ঈদুল ফিতরের জামাত আদায় করতে পারলে এক হজ্জের সমান সওয়াব হয়। এমন অন্ধ বিশ্বাস থেকে এ ঈদগাহ ময়দানকে গরিবের মক্কা বলেও অভিহিত করা হয়ে থাকে।

পাপ্র/ সুআআ

error: Content is protected !!