পাকুন্দিয়ায় লকডাউনের তৃতীয়দিনে পুলিশের কঠোর অবস্থান

কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে কঠোর লকডাউনের তৃতীয় দিনে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া থানা পুলিশের কঠোর অবস্থান দেখা গিয়েছে। পৌর সদর বাজারের বিভিন্ন সড়ক ও মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট বসিয়ে জন চলাচল নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন। তবে সড়কগুলোতে রিকশা চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। পাশাপাশি কিছু ব্যক্তিগত গাড়িও দেখা গিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১জুলাই) ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই লকডাউন চলবে ৭ জুলাই মধ্যরাত পর্যন্ত। লকডাউনের বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে মাঠে রয়েছেন পাকুন্দিয়া থানা পুলিশ।

আজ শনিবার (৩ জুলাই) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলার বেশ কয়েকটি সড়ক ঘুরে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পুলিশের কঠোর অবস্থানের চিত্র দেখা যায়। কিছুক্ষণ পরপর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও বাজারে পুলিশের গাড়ির টহল, মোড়ে মোড়ে পুলিশ দাঁড়িয়ে আছে, চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া রাস্তায় কাউকে থাকতে দিচ্ছে না তারা।

সড়কে থামিয়ে কোথায় যাচ্ছেন, কেন যাচ্ছেন- এমন সব প্রশ্নের পর যৌক্তিক জবাব দিতে পারলেই সাধারণ মানুষকে গন্তব্যে যেতে দেওয়া হচ্ছে। না হয় ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে সবাইকে। রাস্তায় গণপরিবহন চলছে না। তবে চলছে ব্যক্তিগত ও অফিসের গাড়ি। রিকশা চালু আছে।

তাদের মধ্যে ইউএনও ( অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত) একেএম লুৎফর রহমান, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সারোয়ার জাহান ওসি (তদন্ত) নাহিদ হাসান সুমন সকাল থেকে মাঠে থেকে লকডাউন বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাইরে বের হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে কর্তব্যতরা জানিয়েছেন।

তারাকান্দি বাজারের পান ব্যাবসায়ী আশরাফ আলী বলেন, ভোর সকালে পাকুন্দিয়া বাজারে পান কিনতে যাওয়ার সময় পুলিশ চৌরাস্তা মোড়ে দাঁড় করিয়ে কোথায় যাচ্ছেন, কেন যাচ্ছেন- এমন সব প্রশ্নের পর যৌক্তিক জবাব দিলে মাস্ক সঠিকভাবে ব্যাবহারের পরামর্শ দিয়ে ছেড়ে দেয়।

এবিষয়ে পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সারোয়ার জাহান বলেন, কিশোরগঞ্জ পুলিশ সুপার মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদ, বিপিএম(বার) স্যারের পরামর্শে করোনা মোকাবেলায় কাজ করছেন পাকুন্দিয়া থানা পুলিশ। চেকপোস্ট বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা, কোথায়, কেন যাচ্ছেন- এমন সব প্রশ্নের পর যৌক্তিক জবাব দিতে পারলেই সাধারণ মানুষকে গন্তব্যে যেতে দেওয়া। না হয় ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে সবাইকে। পাশাপাশি বাজারে ও গুরুত্বপূর্ণ সড়কে টহল, ও ভ্রাম্যমাণ আদালত কে সহযোগিতা করে যাচ্ছে পাকুন্দিয়া থানা পুলিশ।

এর আগে বুধবার (৩০ জুন) কঠোর বিধি-নিষেধ ও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে সরকারি-বেসরকারি সব অফিস, যানবাহন ও দোকানপাট বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। এই সময়ে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের হলে কঠোর শাস্তির মুখে পড়তে হবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

pakundia pratidin

Executive Editor - নির্বাহী সম্পাদক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *