বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৩৪ পূর্বাহ্ন

পাকুন্দিয়ায় আন্তর্জাতিক নারী দিবসে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মো. স্বপন হোসেন
  • Update Time : সোমবার, ৮ মার্চ, ২০২১
  • ২৬ Time View

  আজ (সোমবার) ৮ মার্চ, আন্তর্জাতিক নারী দিবস। নারীর সম-অধিকার প্রতিষ্ঠায় ১৯১৪ সাল থেকে বিভিন্ন দেশ দিবসটি পালন করে আসছে। ১৯৭৫ সাল থেকে জাতিসংঘ দিনটি ‘আন্তর্জাতিক নারী দিবস’ হিসেবে পালন করছে। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি উদযাপন করা হয়েছে। এবার নারী দিবসের প্রতিপাদ্য- ‘করোনাকালে নারী নেতৃত্ব, গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’।

সকাল ১২টায় পাকুন্দিয়া উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কার্যালয়ের সামনে থেকে র্যালি অনুষ্ঠিত হয়ে কিশোরগঞ্জ-পাকুন্দিয়া রোড প্রদক্ষিণ করে উপজেলা চত্বরে এসে শেষ হয়। আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন র্যালিতে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার সভাপতিত্বে অংশগ্রহণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম রেনু, ভাইস চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ জুয়েল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাহিদ হাসান, সহকারী কমিশনার ভূমি একেএম লুৎফর রহমান, উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার মো. সাইফুল ইসলাম, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ আকন্দ, পাকুন্দিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক শ্যামল মিয়া, উপজেলা পপি এনজিওর প্রজেক্ট অফিসার শাহীন হায়দার, বড় আজলদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফারহানা হাবীব সুমি, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইজিএ প্রকল্পের প্রশিক্ষক-প্রশিক্ষণার্থী, উপজেলার পপি এনজিওর কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, পাকুন্দিয়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মো. মুঞ্জুরুল হক মুঞ্জু, সমাজসেবা সম্পাদক মো. স্বপন হোসেন প্রমুখ। র্যালি শেষে উপজেলা মিলনায়তন হলরুমে (২য় তলায়) আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার মো. সাইফুল ইসলামের সঞ্চালনায় এতে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা স্বপন কুমার দত্তের সভাপতিত্বে আইজিএ প্রকল্পের প্রশিক্ষণার্থীর বিনতে রোকিয়ার পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের পর স্বাগত বক্তব্য রাখেন সভাপতি। স্বাগত বক্তব্যে তিনি নারীর অধিকারের বিভিন্ন বিষয় ও সরকারের বিভিন্ন কর্মাশালার মাধ্যমে নারীর সমাধিকার ও উন্নয়নের কথা, নারী দিবসের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস তুলে ধরেন সভাপতি। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পাকুন্দিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি একেএম লুৎফর রহমান, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার আব্দুল আজিজ, উপজেলা পপি এনজিওর প্রজেক্ট অফিসার শাহীন হায়দার, বড় আজলদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফারহানা হাবীব সুমি, পাকুন্দিয়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মুঞ্জুরুল হক মুঞ্জু প্রমুখ।

সভায় শুভেচ্ছা স্মারক প্রাপ্তি হিসেবে ঘোষিত হয় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী ও মুজিব শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে পাকুন্দিয়া উপজেলায় ১০কিলোমিটার ম্যারাথন দৌড়ে অংশগ্রহণকারী হিসেবে চরফরাদি ইউনিয়নের চরচাড়াল বনের মোছা. তন্নী আক্তার এবং শিক্ষা ও শিশু বিকাশে অবদানের জন্য বড় আজলদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফারহানা হাবীব সুমী। উল্লেখ্য: ১৮৫৭ সালের ৮ মার্চ। সে সময় যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে একটি সুচ কারখানার নারী শ্রমিকরা দৈনিক শ্রম ১২ ঘণ্টা থেকে কমিয়ে আট ঘণ্টায় আনা, ন্যায্য মজুরি এবং কর্মক্ষেত্রে সুস্থ ও স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে সোচ্চার হয়েছিলেন। আন্দোলন করার অপরাধে সে সময় গ্রেফতার হন অসংখ্য নারী। কারাগারে নির্যাতিত হন অনেকেই।

এর তিন বছর পরে ১৮৬০ সালের একই দিনে গঠন করা হয় ‘নারী শ্রমিক ইউনিয়ন’। ১৯০৮ সালে পোশাক ও বস্ত্রশিল্পের কারখানার প্রায় দেড় হাজার নারীশ্রমিক একই দাবিতে আন্দোলন করেন। অবশেষে আদায় করে নেন দৈনিক আট ঘণ্টা কাজ করার অধিকার। ১৯১০ সালের এই দিনে ডেনমাকের্র কোপেনহেগেনে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সমাজতান্ত্রিক সম্মেলনে জার্মানির নেত্রী ক্লারা জেটকিন ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। এরপর থেকেই সারাবিশ্বে দিবসটি আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

জাতিসংঘ ১৯৭৫ সালে আন্তর্জাতিক নারীবর্ষে ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে পালন করা শুরু করে। এর দুই বছর পর ১৯৭৭ সালে জাতিসংঘ দিনটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। নারী দিবস হচ্ছে- জাতিগত, গোষ্ঠীগত, ভাষাগত, সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক কিংবা রাজনৈতিক সব ক্ষেত্রে বৈষম্যহীনভাবে নারীর অর্জনকে মর্যাদা দেয়ার দিন। এদিনে নারীরা তাদের অধিকার আদায়ের জন্য দীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাসকে স্বরণ করে এবং ভবিষ্যতের পথ পরিক্রমা নির্ধারণ করে, যাতে আগামী দিনগুলো নারীর জন্য আরও গৌরবময় হয়ে ওঠে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© ২০১৬ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো কনটেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
কারিগরি সহযোগিতায়: Ashraf Ali Sohan
www.ashrafalisohan.com