সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:২০ অপরাহ্ন

ক্যান্সারে আক্রান্ত ঢাবির শিক্ষার্থী সাব্বির বাঁচতে চায়

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১
  • ২০ Time View

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অনার্স ফাইনাল ইয়ারের মেধাবী শিক্ষার্থী শাহরিয়ার হোসেন সাব্বির প্রাণঘাতী ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত।প্রায় বছর ছয়েক ধরে প্রাণঘাতী ব্লাডক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে যাচ্ছে সে। ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে তাঁর শরীরে এ রোগের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। তখন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে তার চিকিৎসা করা হয়। চিকিৎসায় তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতিও হয়।পরে ভারতের ভেলোরে সিএমসি হাসপাতাল এবং থাইল্যান্ডের ব্যাংকক বামরুনগ্রাদ হাসপাতালেও তার চিকিৎসা করা হয়।সুস্থ হয়ে সাব্বির আবার তার শিক্ষাজীবন শুরু করে।

চিকিৎসা শুরুর পর থেকে প্রায় সাড়ে পাঁচ বছর সে সুস্থ থাকলেও সম্প্রতি তার কিছু শারীরিক জটিলতা দেখা দেয়।ভারতের মুম্বাইয়ে টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরিক্ষার পর চিকিৎসকরা তাঁর শরীরে ক্যান্সার রিল্যান্স করেছে মর্মে অভিমত দিয়েছেন।তারা এর চিকিৎসা হিসেবে দ্রুত তার বোনম্যারো ট্রান্সপ্ল্যান্ট করার জন্যও পরামর্শ দেন। মেধাবী শিক্ষার্থী সাব্বির রোগাক্রান্ত হওয়ায় তার পরিবার, সহপাঠী ও শিক্ষকদের মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তার জন্য দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন তার স্বজন ও সহপাঠীরা।

শাহরিয়ার হোসেন সাব্বির  কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার এক সম্ভাবনাময় ও প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ।গোবরিয়া আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের বড়চারা গ্রামে ১৯৯৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন।তাঁর পিতা একাত্তরের রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোজাম্মেল হক ও মাতা শামসুন্নাহার।

সাব্বির বর্তমানে ভারতের কোলকাতায় টাটা মেডিক্যাল সেন্টার বোনম্যারো ট্রান্সপ্লান্ট করানোর জন্য চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় সাব্বিরের রোগের নাম Acute Lymphoblastic Leukemia (ALL)।চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সাব্বিরের রক্তে দ্রুত স্টেমসেল (বোনম্যারো) প্রতিস্থাপন করতে হবে।

সাব্বিরের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানতে তার ভাই শাহাদাত হোসেন কবিরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সাব্বিরের অবস্থা ক্রমেই অবনতির দিকে যাচ্ছে।কেমোথেরাপি, রেডিয়েশন, ডোনার ম্যাচিং, ট্রান্সপ্লান্ট ও ফলো-আপ ইত্যাদি মিলিয়ে পুরো প্রক্রিয়ায় মাস কয়েক ধরে হাসপাতালে ভর্তি অথবা ফলোআপে থাকতে হবে।

তিনি আরও জানান, গত বছর ছয়েক ধরে সাব্বিরের চিকিৎসায় প্রচুর অর্থ ব্যায় হয়েছে।তাঁর যথাযথ চিকিৎসা ব্যায়ের পাশাপাশি আনুষঙ্গিক খরচসহ সব মিলিয়ে আনুমানিক ৬০ থেকে ৭০ লাখ টাকার প্রয়োজন।

এদিকে সাব্বিরকে বাঁচাতে সকলের আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছেন সাব্বিরের বন্ধু, সহপাঠী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা। কেননা এত টাকা তার পরিবারের পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়।

সহপাঠীরা জানায়, সাব্বির ক্যাম্পাসে খুবই মেধাবী, প্রাণচঞ্চল ও হাসিখুশি আর অসম্ভব খেলা-অন্তঃপ্রাণ এক সম্ভাবনাময় তরুণ। সবার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতো।এতদিনে তার প্রাতিষ্ঠানিক পড়াশোনা শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। ২০১৫ সালের শেষদিকে অনার্স প্রথম বর্ষে পড়ার সময় ওর শরীরে Acute Lymphoblastic Leukemia (ALL) রোগ ধরা পড়ায় তারা সবাই হতবাক।এমতাবস্থায় বন্ধুর জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন এবং তার পরিবারের কথা বিবেচনা করে চিকিৎসা সহায়তার জন্য সবার কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন।

সাব্বিরকে সহায়তা করতে চাইলে বিকাশ/রকেট /নগদ অথবা ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যাবে।বিকাশ/ নগদঃ 01741314315 (পারসনাল)

ব্যাংক অ্যাকাউন্টঃ 1513104884470001 নামঃ মো. শাহাদাত হোসেন কবির।(রোগীর বড় ভাই)।
ব্রাক ব্যাংক লিমিটেড, গ্রাফিক্স বিল্ডিং ব্রাঞ্চ, ঢাকা।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© ২০১৬ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো কনটেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
কারিগরি সহযোগিতায়: Ashraf Ali Sohan
www.ashrafalisohan.com