ঢাকাTuesday , 5 October 2021
  • অন্যান্য
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইটি বিশ্ব
  4. আজকের পত্রিকা
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া সংবাদ
  7. ইউনিয়ন নির্বাচন
  8. ইতিহাস
  9. ইসলাম ও জীবন
  10. ঐতিহ্য
  11. কবিতা
  12. করোনা
  13. কৃতি সন্তান
  14. কৃষি সংবাদ
  15. খেলা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

করোনায় মৃত্যশূন্য কিশোরগঞ্জ

Link Copied!

কিশোরগঞ্জে গতকাল সোমবার রাত ৮টা পর্যন্ত ২৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় একজনের করোনা শনাক্ত এবং কারও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১১ হাজার ৯২৬ জনে। নতুন আক্রান্ত ব্যক্তি কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার।

সিভিল সার্জন ডা. মুজিবুর রহমান সোমবার রাত পৌনে ১০টার দিকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটি পিসিআর ল্যাব হতে (প্রি আইসোলেশনে ভর্তিকৃত জরুরি রোগীসহ) ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে, ৩ অক্টোবর বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটি-পিসিআর ল্যাবে ১৪০ জনের নমুনা পরীক্ষায় কারও করোনা শনাক্ত হয়নি। এছাড়াও কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৭ জন,  পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৭ জন, ও কিশোরগঞ্জ মেডিল্যাব হেলথ সেন্টারে ১৬ জনসহ মোট ৩০ জনের রেপিড এন্টিজেন ও জিন এক্সপার্ট টেস্টে কারও করোনা উপসর্গ পাওয়া যায়নি।

এদিকে, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ৪ জন, সুস্থ হয়েছেন ৬ জন এবং আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ৬ জন।

জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ২১৫ জন।

সিভিল সার্জন আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫ জন। এ পর্যন্ত জেলায় মোট ১১ হাজার ৬৪১ জন সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে জেলায় সর্বেমোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭০ জন।

এর মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৫০ জন, হোসেনপুরে ১ জন, তাড়াইলে ২ জন, পাকু্ন্দিয়ায় ১ জন, কটিয়াদীতে ২ জন, কুলিয়ারচরে ১ জন, ভৈরবে ১০ জন ও বাজিতপুরে ৩ জন রয়েছেন।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে / আইসোলেশনে রয়েছেন ৬৯ জন। আর হাসপাতাল আইসোলেশনে রয়েছেন ১ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন ৮ হাজার ৩০৭ জন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন করেছেন ৬ লক্ষ ৯৩ হাজার ৫৫১ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ টিকা কাউকে দেওয়া হয়নি। তবে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১০ জনকে।

একই সময়ে সিনোফার্ম ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন ৪ হাজার ৮৫৩ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ হাজার ৩৬৪ জন। গত ১৯ জুন থেকে এ পর্যন্ত সিনোফার্ম ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন ৪ লক্ষ ৮২ হাজার ৪৪২ জন এবং মোট দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৮৮ হাজার ১৪৩ জন।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন মোট ৮২ হাজার ৬৬ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন ৭০ হাজার ৪৩৯ জন।