রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০৬:০২ অপরাহ্ন

পাকুন্দিয়া গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দারা সুবিধাবঞ্চিত হচ্ছে বিদ্যুৎ ও বিশুদ্ধ পানির

স্টাফ রিপোর্টার / ১১৮ Time View
Update : রবিবার, ৩ জানুয়ারি, ২০২১
Pakundia Pratidin
Pakundia Pratidin

ভালো নেই কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার পাটুয়াভাঙ্গা গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দারা। এ গুচ্ছ গ্রামে ২৫টি পরিবার নারী-পুরুষ, বৃদ্ধা ও শিশু সহ শতাধিক লোকের বসবাস। এ পরিবার গুলোর মাথা গোঁজার ঠাঁই হলেও বিদ্যুৎ ও বিশুদ্ধ পানির সুযোগ-সুবিধা বঞ্চিত হয়ে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন এখানকার বাসিন্দারা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৬-২০১৭ ইং অর্থবছরে উপজেলার পাটুয়াভাঙ্গা গ্রামের বিলপাড়ে একটি আশ্রয়ণ প্রকল্প নির্মাণ করা হয়। ওই  আশ্রয় প্রকল্পে ২৫ টি পরিবারের শতাধিক লোকের মাথা গোঁজার ঠাঁই পেলেও বিদ্যুৎ,  বিশুদ্ধ পানি ও একটি ব্রীজের জন্য মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন।
সরেজমিনে আশ্রয় প্রকল্প ও গুচ্ছ গ্রাম ঘুরে বাসিন্দাদের দুঃখ-দুর্দশার চিত্র চোখে পড়ার মতো। গুচ্ছ গ্রামবাসীদের অভিযোগ নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করে দায়সারা ভাবে নির্মাণ করা হয়েছিল ৯ টি টিউবওয়েল। কয়েক দিনের মধ্যেই ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পরে। এখন গ্রামে রয়েছে বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট। তিন বছরেও গুচ্ছ গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ হয়নি। প্রতিবছর সরকারের স্যোলার প্যানেল প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সোলার প্যানেল অনেক গ্রামে বিনা মূল্যে বিতরণ করা হয়ে থাকে। কিন্তু এ গুচ্ছ গ্রামের ভাগ্যে জোটেনি কোন সোলার প্যানেল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামের বিধবা আক্ষেপ করে বললেন, সরকারের দেওয়া সোলার প্যানেল উপজেলার বিভিন্ন গ্রামগঞ্জে প্রভাবশালীদের বাড়িতে শোভা পাচ্ছে। কিন্তু আমাদের দিকে কারো নজর নাই।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পাটুয়াভাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন বলেন, সরকার ভূমিহীনদরে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। গুচ্ছ গ্রামের দক্ষিণ দিয়ে একটি ব্রীজ করে বিদ্যুৎ সংযোগ  সহ প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছি।
পাকুন্দিয়া  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাহিদ হাসান জানান, বিদ্যুৎতের টেন্ডার হয়েছে, খুব শীঘ্রই বিদ্যুৎ  পাবে  আশ্রয়ণ ও গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category