Pakundia Pratidin
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৮ আগস্ট ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস
  3. ইসলাম ও জীবন
  4. কৃতি সন্তান
  5. জাতীয়
  6. জেলার সংবাদ
  7. তাজা খবর
  8. পাকুন্দিয়ার সংবাদ
  9. ফিচার
  10. রাজনীতি
  11. সাহিত্য ও সংস্কৃতি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

হোসেনপুরে অবসর প্রাপ্ত বিজিবি দম্পতিকে কুপিয়ে জখম

প্রতিবেদক
পাকুন্দিয়া প্রতিদিন ডেস্ক
আগস্ট ১৮, ২০২২ ৮:০০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টার : কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে অবসর প্রাপ্ত বিজিবি দম্পতিকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ ওঠেছে। আহত বিজিবি সদস্য এএসএম বীর বাহাদুর দু’মাস আগে এলপি আর এ আসা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ ( বিজিবি) সদস্য ৫৮ ঝিনাইদহ বেটালিয়নে কর্মরত ছিলেন।

তিনি উপজেলার পুমদী ইউনিয়নের দক্ষিণ পুমদী গ্রামের মৃত মাজিম উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় তাদের উপর হামলা ও ছিনতাইয়ের অভিযোগে বৃহস্পতিবার বিজিবি সদস্য বীর বাহাদুর হামলার বিচার চেয়ে হোসেনপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ ও আহতদের দেওয়া তথ্যে জানা যায়, বিবাদীদের সহিত জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বুধবার বিকালে অভিযুক্তরা বাদীর বসত বাড়িতে এসে অকথ্য ভাষায় বিজিবি(অব:) সদস্যকে গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় এএসএম বীর বাহাদুর (৪৫) ও তাঁর স্ত্রী সালমা আক্তার (৩৭) প্রতিবাদ করলে হত্যার উদ্দেশ্যে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্র রামদা নিয়ে তাঁদের উপর অর্তকিত হামলা চালিয়ে কুপিয়ে তাদের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে হামলা চালায়। পরে তাদের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাদেরকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ঘটনার বিচার চেয়ে হোসেনপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বুধবার(১৭ আগস্ট) বিকেলে উপজেলার দক্ষিণ পুমদি গ্রামে বাহাদুরের প্রতিপক্ষ মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে বাবুল মিয়া(৫০) বাবুলের ছেলে হৃদয় মিয়া ( ২২), মৃত আশরাফ উদ্দিনের ছেলে কাকন মিয়া(৩৫),আসলাম মিয়ার ছেলে পিয়াস(২৫), তোফাজ্জল(২২) সাজিদ,মাজিদ ও আ:কদ্দুছের স্ত্রী পান্না গং বাহাদুর ও তাঁর স্ত্রী সালমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে দারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা: আবদুল্ল্যাহ আল শামীম জানায়, আহতদের মাথায ও পিছনের মেরুদন্ডে একাধিক আঘাতের কারণে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

হোসেনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(তদন্ত) মো: আসাদুজ্জামান টিটু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ রকম একটি অনাকাংখিত ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে পদক্ষেপ চলছে।

পাপ্র/সুআআ

error: Content is protected !!