চিত্র বিচিত্র

ময়মনসিংহে মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতে মা নিহত

দশ মাস দশদিন যে মা গর্ভে ধারণ করেছেন, স্নেহ, মায়া, মমতায় বড় লালন করেছেন, সে মায়েরই খুন হতে হলো গর্ভে ধারণ করা ছেলের হাতে। এমনই হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছায়।

মুক্তাগাছা থানার তারাটি ইউনিয়নের মৈশাদিয়া গ্রামে ছেলে গোলাম মোস্তফার (৩০) আঘাতে মা মনোয়ারা বেগম (৪৮) নামে এক মায়ের মৃত্যু হয়েছে।

ছেলে গোলাম মোস্তফাকে (৩০) গ্রেফতার করেছে মুক্তাগাছা থানা পুলিশ। সে ওই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার তারাটি ইউনিয়নের মৈশাদিয়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের বড় ছেলে গোলাম মোস্তফা দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগে ভুগছে। তাকে লোহার শিকল দিয়ে বাড়ির একটি খোলা ঘরে বেঁধে রাখা হতো।

আজ শুক্রবার ভোরে লোহার শিকল খুলে ফেলে সে। ভোরে ফজরের নামাজ পড়তে তার মা মনোয়ারা বেগম বের হন সে সময় ছেলে মোস্তফা ঘরে থাকা ওজন মাপার পাথর দিয়ে মনোয়ারা বেগমের মাথার পেছনে আঘাত করে। মনোয়ারা বেগম মাটিতে লুটিয়ে পড়লে এরপরও তার মাথায় আঘাত করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মনোয়ারা বেগমের মৃত্যু হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মুক্তাগাছা থানার ওসি বিপ্লব কুমার বিশ্বাস গনমাধ্যমকে জানান , পাগল ছেলেকে খোলা একটি ঘরে খালি গায়ে বেঁধে রাখা হয়েছিল; সে সারা রাত শীতে কাঁপছিল। এছাড়া তাকে রাতের খাবারও দেয়া হয়নি। হয়তো এই ক্রোধে সে লোহার শিকল খুলে তার মাকে পাথর দিয়ে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই মায়ের মৃত্যু হয়।

 

Nazmul
বার্তা সম্পাদক 01795995615
http://pakundiapratidin.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *