Pakundia Pratidin
ঢাকাসোমবার , ২২ আগস্ট ২০২২
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস
  3. ইসলাম ও জীবন
  4. কৃতি সন্তান
  5. জাতীয়
  6. জেলার সংবাদ
  7. তাজা খবর
  8. পাকুন্দিয়ার সংবাদ
  9. ফিচার
  10. রাজনীতি
  11. সাহিত্য ও সংস্কৃতি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মোমিনরা মু’অমিন হোক

প্রতিবেদক
পাকুন্দিয়া প্রতিদিন ডেস্ক
আগস্ট ২২, ২০২২ ৯:৩৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সুলতান আফজাল আইয়ূবী
মোমিনের লক্ষণ তো হলো কম কথা বলা। কিন্তু ইদানিং নামধারী মোমিনরা চিন্তা-ভাবনা না ক’রে এমন কথাবার্তা বলে ফেলে, যার দ্বারা তাদের পদস্খলন ঘটে। এসব আবার রাজাধিরাজ জীবন বিধানেও উল্ল্যেখ করে সর্তক করে দিয়েছিলেন। কিন্তু ঐযে আমরা বাগধারায় পড়েছিলামনা চোরে না শুনে ধর্মের কাহিনী।

সর্বাধিক হাদীস বর্ণনা কারী সাহাবী আবু হুরাইরা থেকে বর্ণিত একটি
وَعَنْ أَبِـيْ هُرَيْرَةَ أنَّه سَمِعَ النَّبيَّ ﷺ يَقُوْلُ إنَّ العَبْدَ لَيَتَكَلَّمُ بِالْكَلِمَةِ مَا يَتَبَيَّنُ فِيهَا يَزِلُّ بِهَا إِلَى النَّارِ أَبْعَدَ مِمَّا بَيْنَ المَشْرِقِ وَالمَغْرِبِ متفق عَلَيْهِ তিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনেছেন যে, মানুষ চিন্তা-ভাবনা না ক’রে এমন কথাবার্তা বলে ফেলে, যার দ্বারা তার পদস্খলন ঘটে পূর্ব-পশ্চিমের মধ্যবর্তী দূরত্ব থেকে বেশি দূরত্ব দোযখে গিয়ে পতিত হয়। (বুখারী ৬৪৭৭, মুসলিম ৭৬৭২)

আবার মানুষ কখন কি বলে তার জন্য সর্বদায় ফেরেশতা নিযুক্ত রয়েছেন। সব কথায় লিখে রাখা হয়। মহান আল্লাহ বলেছেন – مَا يَلْفِظُ مِنْ قَوْلٍ إِلاَّ لَدَيْهِ رَقِيْبٌ عَتِيْدٌ অর্থাৎ, মানুষ যে কথাই উচ্চারণ করে (তা লিপিবদ্ধ করার জন্য) তৎপর প্রহরী তার নিকটেই রয়েছে। (সূরা ক্বাফ ১৮)

মোমেনরা শুধুমাত্র নামটাই ধারণ করতে পেরেছে জন্মদাতাদের কল্যানে। প্রকৃত মুমিন আর হতে পারেনি। বরং হয়েছে মুমিনের উল্টাটা। মোমিনের স্রষ্টা মোমিনের প্রতিপক্ষকে বলেছেন তারা বেহেশতে আছেন। যেটা সাময়িক, আর মোমিনের বেহেশত অনন্তকাল।কিন্তু মোমিন তার প্রতিপক্ষের সাথে সাথে সেও এই বেহেস্তে থাকতে চাই। কি দুঃসাহস! মোমিনের? সৃষ্টি হয়ে স্রষ্টার প্রতিপক্ষে দাঁড়ায়।

وَعَن أَبي هُرَيرَةَ رضي الله عنه، عَن رَسُولِ اللهِ ﷺ، قَالَ : قَالَ رَسُولُ اللهِ ﷺ: «الدُّنْيَا سِجْنُ الْمُؤْمِنِ، وَجَنَّةُ الكَافِرِ ». رواه مسلم বাংলা অনুবাদ আবু হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, দুনিয়া মুমিনের জন্য জেলখানা এবং কাফিরের জন্য জান্নাত।’ (মুসলিম ২৯৫৬)

মোমিনরা হয়তো আবেগের ঠ্যালায় বিবেক লোপ পেয়ে পাগলের প্রলাপ বকে। পরে অবশ্য এটার জন্য কৈফিয়তও দিতে হয়। মোমিনরারে তো আমরা যথেষ্ঠ বিবেকবান মনে করি। কেন অযথায় বকবক করে নিজেদের যে গিলুর কিঞ্চিৎও নাই মাথায় সেটা প্রমান করে। কথা কম বলায় তো ভাল। যত কম কথা বলবে মোমিনরা ততই ভাল থাকবে নয়তো যেকোন সময় তার আসল রূপ বের হয়ে যাবে। চুপ থাকা যে মঙ্গল সেটার উপদেশ দিয়ে গেছেন সর্বশ্রেষ্ঠ মানব হাদীসে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন – عَنْ عَبْدِ اللهِ بْنِ عَمْرٍو قَالَ : قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَن صَمَتَ نَـجَا
আব্দুল্লাহ বিন আমর (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে চুপ থাকে, সে পরিত্রাণ পায়।
(সহীহ তিরমিযী ২৫০১)

ইশ! যদি তোমরা শিক্ষা নিতে? মোমিনরা এভাবে বেফাঁস কথা বলতে বলতে নিজের পাঁয়ে কুড়াল মারছে। আর ধ্বংস করছে নিজেদের দ্বীন দুনিয়া।এখনও সময় আছে মোমিনরা মু’অমিন হোক। লাগাম টানুক নিজেদের মুখে। বলাতো যায়না এভাবে থলের বিড়াল হতে হতে বিড়াল শূণ্য থলে কখন হয়ে যায়।পরে দ্বীন-দুনিয়া দুটোই অন্ধকার হবে মোমিনদের।

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
পাকুন্দিয়া প্রতিদিন

error: Content is protected !!