আইটি বিশ্ব আজকের পত্রিকা তাজা খবর সোশ্যাল মিডিয়া

প্রযুক্তির ফাঁদে পড়লে যা করবেন

আইটি ডেস্ক : অভিনব নানা উপায়ে প্রযুক্তির ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব কেড়ে নিচ্ছেন দুষ্টচক্র। প্রযুক্তির এসব ফাঁদ বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে। না বুঝে এ ফাঁদে পড়লে দ্রুত যেসব পদক্ষেপ নিতে হবে তার-ই বিস্তারিত নিয়ে আজকের আয়োজন। লিখেছেন-

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে

* সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে ঘটনার বিবরণ উল্লেখ করে নিকটস্থ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে হবে। বিশেষ করে ঢাকা মহানগরীর প্রতিটি থানায় সাইবার অপরাধসংক্রান্ত বিশেষ ট্রেনিংপ্রাপ্ত একজন ইন্সপেক্টর ও দু’জন এসআই রয়েছে। ফলে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকের ঘটনায় থানায় গিয়ে প্রতিকার চাইতে গেলে আগের মতো বিব্রত হওয়ার সম্ভাবনা কম।

* কোনো কারণে যদি ভুক্তভোগী মনে করেন, নিকটস্থ থানা-পুলিশ পূর্ণ সহযোগিতা করছে না; এক্ষেত্রে জিডির কপি নিয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের হেডকোয়ার্টারে অবস্থিত সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সঙ্গে যোগাযোগ করা যেতে পারে। এছাড়াও দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে পুলিশের ‘হ্যালো সিটি’ অ্যাপসের মাধ্যমে অভিযোগ দাখিল করেও সহযোগিতা নেয়া যাবে।

* শুধু ফেসবুক হ্যাকিং হলে তাড়াহুড়া না করে কয়েকদিন অপেক্ষা করে নিয়মিত ফলোআপ করলেই প্রতিকার পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কেননা অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি এবং আন্তরিক বহু কর্মকর্তা সাইবার ক্রাইম ইউনিটের রয়েছে। ফলে প্রতিকার সহজেই মিলছে।

অনলাইনে আপত্তিকর ছবি ছড়িয়ে দিলে করণীয়

* দুষ্কৃতকারীরা ইন্টারনেটে আপত্তিকর ছবি বা ভিডিও ছড়িয়ে দিলে ভুক্তভোগী প্রথমে cyberhelp@dmp.gov.bd এ ঠিকানায় ই-মেইলের মাধ্যমে ঘটনার বৃত্তান্ত লিখে অভিযোগ জানাতে পারবেন।

* ভুক্তভোগী যদি মনে করেন, সরাসরি কথা বলে সমস্যার কথা জানাতে চান তাহলে ডিএমপি’র কাউন্টার টেরোরিজম ডিভিশনের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের অফিসে চলে যেতে পারেন। এছাড়াও ভুক্তভোগী প্রয়োজন বোধ করলে দায়িত্বরত কর্মকর্তার সঙ্গে এ নম্বরে ০১৭৬৯৬৯১৫২২ কথা বলেও প্রতিকার চাইতে পারেন।

অভিযোগ করতে যে বিষয়গুলো লক্ষ রাখতে হবে

* ইন্টারনেটে যে কোনো ধরনের হেনস্তার শিকার হলে যত দ্রুত সম্ভব অভিযোগ জানানোর পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। অভিযোগ করার ক্ষেত্রে অবশ্যই অভিযোগের স্বপক্ষে কিছু প্রমাণাদি প্রয়োজন হবে যেমন- সংশ্লিষ্ট আলামতের স্ক্রিনশট, লিঙ্ক, অডিও-ভিডিও ফাইল বা অভিযোগসংক্রান্ত অন্যান্য ডকুমেন্টস।

* স্ক্রিনশট সংগ্রহের ক্ষেত্রে অবশ্যই Address Bar-এর URL-টি যেন দৃশ্যমান থাকে, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।

* Hello CT অ্যাপ ও ই-মেইল-এর মাধ্যমে অভিযোগ জানাতে চাইলে এসব কনটেন্ট অ্যাটাচ করে আপলোড করতে হবে। অন্যান্য ক্ষেত্রে সরাসরি সফট কপি দেয়া যেতে পারে।

* ভুক্তভোগী ব্যক্তি যে কোনো পরামর্শ-সহযোগিতার জন্য সাইবার ক্রাইম ইউনিটের অফিসারদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন। সেসব পরামর্শ আইনি সহায়তা পাওয়ার ক্ষেত্রে সহায়ক হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *