আজকের পত্রিকা

পুলেরঘাটে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও রক্তদানে উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসুচি

আকিবুর রহমান : “রক্ত দিলে হয় না ক্ষতি, জাগ্রত হোক সেই অনুভুতি”এই শ্লোগানকে সামনে রেখে কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার পুলেরঘাট এলাকার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কালিয়াচাপড়া চিনিকল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তারুণ্য রক্তদাতা সংগঠনের উদ্যোগে আজ শনিবার দুপুর ২ঃ৩০ মিনিটে “ভুইয়া ফুটবল একাডেমির” খেলোয়ারদের বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও রক্তদানে সামাজিক কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

তারুণ্য রক্তদাতা সংগঠন আয়োজিস এ প্রোগ্রামে উপস্থিত ছিলেন পুলেরঘাট তাসলিমা মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ আবু্ল হাসিম বুলবু্ল,তারুণ্য রক্তদাতা সংঘঠনের উপদেষ্ঠা ও গুরুদয়াল সরকারী কলেজের প্রভাষক এইচ,এম মাহফুজ,মুক্তিযোদ্বা সন্তান কমান্ড, বনগ্রাম ইউনিয়নের সভাপতি জনাব সাইফুল্লাহ জামান সরকার,৩৪ তম বিসিএস ক্যাডার ফোরামের সভাপতি
জনাব সফিউল্লাহ দিদার, কিশোরগঞ্জ জেলা সরকারি গণ-গ্রন্থাগারের সহকারি পরিচালক আজিজুল হক সুমন, তারুণ্য রক্তদাতা সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক নাঈম ইসলাম সাগর,সভাপতি তন্ময় শেখ রাজন,সিনিয়র সহ-সভাপতি অারাফাত রহমান অালিফ,জাহাঙ্গীর অালম জীবন, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম(ওনি এখন পর্যন্ত ৩৭ বার রক্ত করেছেন), সাংগঠনিক সম্পাদক রায়হান অাহমেদ, এস সজীব সরকার,ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোবারক খান সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

রক্তের গ্রুফ নির্ণয় ক্যাম্পিং

এ অনুষ্ঠানে তারুণ্য রক্তদাতা সংগঠনের উপদেষ্ঠা আজিজুল হক সুমন পাকুন্দিয়া প্রতিদিনের পাটুয়াভাঙ্গা প্রতিনিধি কে জানান,রক্ত দিন জীবন বাঁচান, রক্ত দিলে হয় না ক্ষতি জাগ্রত হোক সেই অনুভুতি,এই অনুভূতি হৃদয়ে ধারণ করে মানবিক কল্যানে এগিয়ে যাবে সংগঠনটি।
রক্তদান এর মাধ্যমে একজন অসুস্থ মানুষের জীবন বাঁচাতে সাহায্য করে।রক্তের জন্য এখন বাংলাদেশে মানু্ষ মারা যায় না,তারুণ্য রক্তদাতা সংঘঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাগর দেশ ব্যাপী এ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে আমি এই সংগঠনের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি।

উল্লেখ্য, ভুইয়া ফুটবল একাডেমি’র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক, তাসলিমা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও নারায়ণগঞ্জ জেলার সহকারী পুলিশ সুপার (সিআইডি) জনাব হারুন রশিদ ভুইয়া।
তিনি ২০১২ সালে থেকে এ ক্লাবটি পরিচালনা করে আসছে। উক্ত ক্লাব থেকে দেশ ও দেশের বাহিরে বিভিন্ন ক্লাবে খেলেছে। বাংলাদেশ অনুর্ধ ১৭ দলে মোঃ নিপুন মিয়া।বসুন্ধরা ক্লাবে মোঃ শাহীন,মুন্সি রানা, এ ছাড়া ও দুবাই,মালয়েশিয়া বিভিন্ন ক্লাব থেকে খেলেছেন খেলোয়াররা।

এ প্রসঙ্গে ক্লাবের প্রধান কোচ মোঃ সোলাইমান বলেন,আমি দীর্ঘদিন যাবৎ এ ফুটবল ক্লাবে কোচিং করিয়ে আসছি।আমার পরিচালনায় এবং আমার ক্লাবের প্রতাষ্ঠাতা জনাব হারুন সাহেবের আন্তরিকতায় ক্লাবটি ইতিমধ্যে সাফল্যের মুখ দেখতে শুরু করেছে। দেশ এবং দেশের বাহিরে বিভিন্ন ক্লাবে তারা খেলেছে। তিনি আরো বলেন আপনাদের সহযোগিতার পেলে ক্লাবটি আরো এগিয়ে যাবে।

Nazmul
বার্তা সম্পাদক 01795995615
http://pakundiapratidin.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *