অর্থনীতি আজকের পত্রিকা ঐতিহ্য চিত্র বিচিত্র তাজা খবর

পাকুন্দিয়া উপজেলায় পর্যটন শিল্প সম্ভাবনা কাজে লাগাতে হবে

নূরুল জান্নাত মান্না : অপরূপ প্রাকৃতিক বৈচিত্র্যে ভরপুর কিশোরগঞ্জ জেলায় রয়েছে অসংখ্য ইতিহাস ও ঐতিহ্যের নিদর্শন যা কালের সাক্ষী হয়ে আজও দাঁড়িয়ে আছে। জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলায় এগারসিন্দুর সপ্তদশ শতাব্দীতে বাংলার বিখ্যাত বাণিজ্যবন্দর হিসাবে খ্যাতি লাভ করেছিল। এখানে অসংখ্য বাণিজ্য তরী নোঙ্গর করতো।

ঈসা খাঁর দুর্গ

এগারসিন্দুর জমজমাট নৌবন্দর ব্যবসা কেন্দ্র ছাড়াও ধর্ম প্রচারক পীর, আউলিয়া ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের বাসস্থান হিসাবে সুনাম রয়েছে। এখানে আছে দীঘি, মাযার, সম্রাট শাহজাহানের আমলের সাদী মসজিদ, শাহ মাহমুদের মসজিদ, বেবুদ রাজার দীঘি, ভেলুয়া সুন্দরীর দীঘি ইত্যাদি।

এগারসিন্দুর শাহ মোহাম্মদ মসজিদ

ঐতিহাসিক জনপদ বিশেষ করে এগারসিন্দুরের ইতিহাস ঐতিহ্য কারো অজানা নয়। এগারসিন্দুর তার ঐতিহ্যের জন্য সমগ্র বাংলাদেশে সমাদৃত। এখানে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠলে সরকারের বিপুল রাজস্ব আয় অর্জিত হবে। এ জন্য পাকুন্দিয়া উপজেলার দর্শনীয় স্পটগুলোতে দ্রুত, আরামপ্রদ ও নিরাপদ যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং বিদ্যুৎ ও টেলিযোগাযোগের যথেষ্ট সুব্যবস্থা নিশ্চিত করা এখন খুবই প্রয়োজন।

এগারসিন্দুর বেবুধ রাজার পুকুর

পাশাপাশি দুর্বৃত্ত, ছিনতাইকারীদের অভয়াশ্রমে যাতে পরিণত না হয় সে ব্যাপারে দৃষ্টি রাখতে হবে। পর্যটন খাতে বিনিয়োগের জন্যে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করা প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *